চলতি বছরে বাজারে আসা সবচেয়ে আলোচিত তিনটি ট্যাবলেট মডেল

Summary of this article
Tablet devices are being very popular now a days. Those who are looking for a gadget which have lager screen than smartphone but more comfortable to carry than laptop- choose tablet. This year many brands release their new innovation and improvement on tablet models. Lets know about the most featured tablet models which release in this year.

প্রতি দিনই প্রযুক্তি পণ্যের বিশ্ব বাজারে সামিল হচ্ছে নতুন নতুন সব ডিভাইস। আজকেও যেটাকে লেটেস্ট প্রযুক্তি বলে স্বীকার করছেন, কালকেই সেটা পুরনো হয়ে পড়ছে। দৈনন্দিন ব্যবহার্য গ্যাজেটগুলোর মধ্যে ট্যাবলেট সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। আজ এমনই কিছু ট্যাবলেট ডিভাইসগুলো নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে যেগুলো চলতি বছরেই রিলিজ হয়েছে। চলুন ঢুকে পড়া যাক মূল আলোচনায়।

Lenovo Tab 2 A7-30

এ বছরের জানুয়ারী মাসে বাজারে আসা এ ট্যাবলেটটির সবচেয়ে আকর্ষণীয় সুবিধা হিসেবে এর সাশ্রয়ী মূল্যের কথা উল্লেখ করা যায়। চমৎকার স্টাইলিশ ডিজাইনের সঙ্গে এ ট্যাবলেটটিতে ব্যবহার হয়েছে শক্তিশালী কোয়াড-কোর প্রসেসর, ১ জিবি র‌্যাম, ১৬ জিবি রম, 3450 mAh ব্যাটারী এবং সর্বোপরি ৭ ইঞ্চি আইপিএস ডিসপ্লে স্ক্রীণ। দাম বাজারের অন্যান্য ট্যাবলেট মডেলগুলোর তুলনায় কিছুটা কম হলেও পারফরম্যান্সের বিচারে ২৫৭ গ্রাম ওজনের সুদৃশ্য এই ডিভাইসটি কোন অংশে কম নয়। দৈনন্দিন কম্পিউটিং টাষ্ক পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সকল দায়িত্ব নিতে সক্ষম এ ডিভাইসটিতে রয়েছে ২ মেগাপিক্সেল প্রাইমারী এবং ০.৩০ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। এছাড়া ওয়াই-ফাই, ব্লু-টুথ, নানা ধরণের সেন্সর আর প্রি-ইনষ্টল এ্যাপ্লিকেশনগুলো তো থাকছেই।

Asus Fonepad 7 FE171CG

চলতি বছর রিলিজ হওয়া ট্যাবলেটগুলোর মধ্যে Asus ব্র্যান্ডের এই ডিভাইসটিও ক্রেতাদের মধ্যে বেশ আলোড়ন তৈরি করেছে। এ্যান্ড্রয়েড কিটক্যাট অপারেটিং সিস্টেম পারিচালিত এই ডিভাইসটিতে অভ্যন্তরীন কার্য সম্পাদনের জন্য ব্যবহার হয়েছে 1.2 GHz ডুয়েল-কোর ইন্টেল এটম প্রসেসর এবং ১ জিবি র‌্যাম। রয়েছে ৮ জিবি ইন্টারনাল মেমোরী যা মাইক্রোএসডি কার্ড ব্যবহার করে ৬৪ জিবি পর্যন্ত বাড়িয়ে নিতে পারেন। থ্রিজি টেকনোলজি সাপোর্টেড এই ট্যাবলেটটির সবচেয়ে ভাল বিষয়গুলোর একটি হচ্ছে এর দুর্দান্ত ক্যামেরা কোয়ালিটি। 3x অপটিক্যাল জুম সম্বলিত ৮ মেগাপিক্সেল প্রাইমারী ক্যামেরা খুবই চমৎকার মানের ছবি তুলতে সক্ষম। এছাড়া সেল্ফি তোলা বা ভিডিও চ্যাট করার সুবিধার্থে রয়েছে ২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। ওয়াই-ফাই এবং ব্লু-টুথের মত বহুল জনপ্রিয় কানেকটর ছাড়াও এ ডিভাইসটি ইউএসবি পোর্ট সাপোর্ট করে। গেইম খেলা, মুভি দেখা বা ইন্টারনেট সার্ফিংয়ের মত কাজগুলো সম্পাদনের ক্ষেত্রে ৭ ইঞ্চির ঝকঝকে আইপিএস এলসিডি টাচস্ক্রিণ ডিসপ্লের পারফরম্যান্সও আপনাকে মুগ্ধ করার জন্য যথেষ্ট।

Samsung Galaxy Tab 3 V

স্যামসাং ব্র্যান্ডটি স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্র্যান্ডগুলোর একটি। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এ ব্র্যান্ডটি ট্যাবলেট বাজারজাত শুরু করেছে এবং এ ক্ষেত্রেও যথেষ্ট পারদর্শিতার পরিচয় দিতে সক্ষম হয়েছে। চলতি বছরের মার্চ মাসে স্যামসাং Tab 3 V ডিভাইসটি বাজারে ছাড়ে। বাজারে আসার পর পরই ডিভাইসটি বাংলাদেশ তথা বিশ্ব বাজারে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জনে সক্ষম হয়। আল্ট্রা স্লিম ডিজাইনের সুদৃশ্য এই ট্যাবলেট মডেলটিতে ব্যবহার হয়েছে ১ জিবি র‌্যামসহ 1.2 GHz ডুয়েল-কোর প্রসেসর। এছাড়াও এতে রয়েছে ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ যা মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ৩২ জিবি পর্যন্ত এক্সপান্ডেবল, ২ মেগাপিক্সেল প্রাইমারী ক্যামেরা এবং 3600 mAh দীর্ঘ ব্যাটারী। ডিভাইসটিতে ইউএসবি কানেক্টর ব্যবহারের সুবিধার পাশাপাশি যুক্ত হয়েছে ওয়াই-ফাই এবং ব্লু-টুথের মত ইন্টারনেট এবং ফাইল শেয়ারিং প্রযুক্তি। ৭ ইঞ্চির চমৎকার টিএফটি টাচ্ স্ক্রিণ ডিসপ্লে গেইমিং বা ভিডিও দেখার ক্ষেত্রে খুবই চমৎকার অভিজ্ঞতা প্রদানে সক্ষম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *